Thursday, June 28, 2018

সফর

সফর

ট্রেনটা খুব দ্রতগতিতে এগোচ্ছে।মনে হয় খুব তাড়াতাড়িই হাওড়া ঢুকে যাবে।আবহাওয়াটাও খুব সুন্দর।আর এত সুন্দর হাওয়া যে আমন এর চোখদুটো শান্তির আমেজে বন্ধ হয়ে এল।বেশ কিছুদিনের ক্লান্তির পর আজ বাড়ি গিয়ে একটু হাত-পা মেলে ঘুমতে পারবে।এই আশায় ও চোখ বুজল।

        কিন্তু হঠাৎ করে মনে হল।কে যেন একটা ওর দিকে তাকিয়ে আছে,ওকে অদ্ভুত ভাবে আকর্ষণ করছে।ও চোখ খুলতে বাধ্য হল।জানালার ধারে জানালায় হেলান দিয়ে চোখ বন্ধ করে যে ও কখন ঘুমিয়ে গেছল বুঝতেই পারেনি।চোখ খুলে দেখে সাঁতরাগাছি।ঈস্,বড্ড বেশি ক্লান্তি এসেছিল।কিন্তুওটা কে?আমন এক অদ্ভুত আবেদনপূর্ণ দৃষ্টিতে তাকিয়ে রইল তার উল্টোদিকে বসা সহযাত্রীর দিকে।একি!এক অদ্ভুত মিল।অবিকল সেই চোখ,চোখের সেই দৃষ্টি যেটা আমনকে পাগল করে তুলত,সেই পাতলা দু'টো ঠোঁট, কিন্তু লাল লিপস্টিক লাগানো।সেই একই গায়ের রঙ।একি দেখছে সে!চোখদু'টোকে ভালো করে কচলে সে আবার তাকালো সেই মেয়েটির দিকে।না,স্বপ্ন নয়।সেই একই...

             "আমায় চিনতে পারছ আমন?"একি মেয়েটা নাম জানল কি করে?"আমি মৌরি মানে ঐ যে হিয়া,কি ভুলে গেছেন?"

―"না না।এ হতে পারে না।"

           নিজেকে সামলে নিল আমন।বহুকষ্টে শান্তকন্ঠে বলল,"না,মানে হ‍্যাঁ।মানে চিনতে পেরেছি,কিন্তু তুমি?"

―"হ‍্যাঁ,হাওড়া যাব"

―"ও আচ্ছা।"

―"বিয়ে করলেন।তা আপনার স্ত্রী র সাথে একদিন আলাপ..."

―"ও হ‍্যাঁ।তোমার বর?"

―"ও ভালোই আছে।"

                 হ‍্যাঁ,ভালোই থাকবে,মনে মনে বলে উঠল আমন।যে মেয়ে এত ভালো তার বর কি আর খারাপ থাকবে?....এসব ভেবে নিজেকেই সে দোষারোপ করল।সেদিন যদি ঐভাবে ওকে কষ্ট না দিত মৌরি তবে আজ ওর হত।কিন্তু হল না।কিন্তু মৌরির এটা কি সাজ?এভাবে তো ও সাজত না।কালো শাড়ি এক অদ্ভুত ভাবে পরা,শরীরের অর্ধেক দৃশ‍্যমান।কপালের সিঁদুর হাল্কা,কষ্টকরে দেখতে হয়।তবে ঠোঁটে ও লাল লিপস্টিকটা এত উগ্র করে পরেছে কেন?একটা নম্র ভদ্র শান্ত মেয়ে মৌরি,কোনোদিন আমনের মুখের ওপর কথা বলেনি,তার হঠাৎ এত পরিবর্তন?

―"এই যে আমার স্বামী।"

―"ও আচ্ছা।নমস্কার,আমি আমন।"

―"হুঁ,নমস্কার,তবে আপনিই সে?"

     মুখে এক ক্রুর হাসি নিয়ে বলে উঠল মৌরির স্বামী।লজ্জায় আমন মাথা নীচু করল।আড়চোখে তাকিয়ে দেখল মৌরিরও মাথা হেঁট।

কথা বলতে বলতে ট্রেনটা হাওড়া ঢুকে গেল।

―"এই হিয়া,নেমে আয়‌।"

―"আঞ্জে যাই।"

            একি ভাষা?স্ত্রী র সাথে কেউ এভাবে কথা বলে কি?হঠাৎ কি যেন একটা সন্দেহ হল।দেখল ওরা যেন কোন একটা দিকে যাচ্ছে।আমনও তাড়াতাড়ি নেমে ওদের পেছন ধরল।লক্ষ্য করল মৌরি আর ওর স্বামীর মধ‍্যে কিছু একটা চলছে।বোধহয় কিছুঝগড়াঝাটি হয়েছে।ব‍্যক্তিগত ভেবে আমন অন‍্যদিকে হাঁটা লাগালো।

―"আরে শৈঠজী,আনকোরা,একদম আসলী মাল হ‍্যায়।দেখতে হি রহেনা জী।বহুৎ বড়িয়া লড়কী হ‍্যায়।আপকো খুশ করনে কে লিয়ে কাফি হ‍্যায়।"

        একি,মৌরির স্বামীর গলা না।ঠিক্।পেছনে ঘুরেদেখল আমন মৌরিকে ওর স্বামী জোর করে তুলে দিল ঐ শেঠজীর হাতে।

―"নেহি নেহি শেঠজী।ইতনা ভি তো দে হি সাকতা আপ।"

―"আরে,ইয়ে লড়কী তো বিলকুল পরী কিতরা হ‍্যায়।লো,জিতনা ভি চাহে তুমকো,লে লো।"

                বলে শেঠজীর হাত চলে গেল মৌরির ঐ অনাবৃত অংশে।ঈস্,ছিঃ!আমন আর কিচ্ছু দেখতে পারল না।শুধু দেখল মৌরির চোখে জল।,সেই জল।যেদিন মৌরিকে ও"বেশ‍্যা"বলে  গালিগালাজ করেছিল সেইদিন যেমন জলে ভেসেছিল মৌরির দু'চোখ,ঠিক তেমন।আর তার স্বামী তার ঐ সুন্দর নরম চুলগুলোকে মুঠো করে ধরে তুলে দিচ্ছে শেঠজীর হাতে।ঐ নরম চুলগুলো নিয়ে আমন কত আদর করেছে মৌরিকে।ঈস্,সেদিন যদি ঝগড়াটা না হত!!



লিখেছেন : Arena Patra

0 comments: