Friday, September 14, 2018

ফটোগ্রাফী | ভূমিকা


Introduction

ফোটোগ্রাফি : Introduction

ফটোগ্রাফী: ভূমিকা



আধুনিক সময়ে ডিজিটাল কামেরার উন্নতির সাথে সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়ে উঠেছে ফোটোগ্রাফির জনপ্রিয়তা | সোশ্যাল মিডিয়া ও ইন্টারনেট প্রযুক্তিবিদ্যার উন্নতির সুবাদে,ফোটোগ্রাফির জগতে আজ এক বিপ্লব এসে গেছে,মানুষের দৃষ্টিভঙ্গির অনেকটা পরিবর্তন হয়েছে,আগের চেয়ে মানুষ এখন অনেক বেশি ছবি দেখতে চায়,আজকাল অধিকাংশ স্মার্ট ফোনেই ভালমানের ছবি তোলা যায়,সেই সাথে একটু আগ্রহ থাকলেই,অল্প দামেই কিনে নেওয়া যায় ডিজিটাল ক্যামেরা |আগের মত বার বার ফ্লিম কেনার খরচা বা ছবির Post Processing এর ঝামেলা কোনোটাই নেই,এতে ফোটোগ্রাফির বেসিকস শেখা খুব একটা কঠিন কাজ নয় বরং অনেকটা মজার | কিন্তু এই বিষয়গুলো শিখে রাখাটা অনেক জরুরী কারণ বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় ক্যামেরা কেনার ২-৩ মাস ছবি তোলার পর 'আমার ছবি ভালো হচ্ছে না ' বা 'আমার দ্বারা হবে না ' এসব বলে অনেকেই হাল ছেড়ে দেন | আমার ধারণা এর মূল কারণ হচ্ছে বেসিকস এর অভাব | যেকোনো শিল্পমাধ্যমেই যেমন যন্ত্র/রং /তুলি /ম্যটেরিয়াল  এর চেয়ে শিল্পীর দৃষ্টিভঙ্গি ,প্রকৌশল,একাগ্রতা এসব বেশি জরুরী হয়,ফোটোগ্রাফির ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম ঘটে না |
এটা মনে রাখতে হবে  DSLR ক্যামেরায় আমরা শুধু ছবি তুলি না,ছবি তৈরী করি,তাই সেক্ষত্রে কোনো বিষয়কে বিভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি থেকে দেখার ক্ষমতার পাশাপাশি ক্যামেরার খুটিনাটি জেনে নেওয়াটাও অত্যন্ত জরুরী |

কাজের ক্ষেত্র: 


সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে প্রিন্ট ও অনলাইন পত্রিকা। নিউজ এজেন্সি, বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতেও (এনজিও) রয়েছে  ফটোগ্রাফারদের চাহিদা। ফলে তৈরি হচ্ছে ফটোগ্রাফারদের  কর্মসংস্থান। তা ছাড়া তথ্যচিত্র বানানো কিংবা ফ্রিল্যান্সার হিসেবেও কাজ করার সুযোগ রয়েছে।
ফোটোগ্রাফি প্রশিক্ষকদের মতে ,যেকোনো বয়সের লোকজন ফোটোগ্রাফির  প্রশিক্ষণ নিতে পারেন। এখন অনেকেই ফটোগ্রাফিকে পেশা হিসেবে নিচ্ছেন। কেউ প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন, কেউ ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করছেন। পাশাপাশি ওয়েডিং ফটোগ্রাফার (বিয়ের ছবি তোলা) হিসেবেও কাজ করছেন কেউ কেউ।
এছাড়াও ফোটোগ্রাফির আরো অনেক দিক রয়েছে যেমন -

১. WILD LIFE  PHOTOGRAPHY
২. PRODUCT PHOTOGRAPHY
৩. FORENSIC PHOTOGRAPHY
৪. TRAVEL PHOTOGRAPHY
৫. STUDIO PHOTOGRAPHY   ইত্যাদি |

**আলোচনার পরবর্তী পর্যায়ে আমরা এগুলো নিয়ে ডিটেলস আলোচলা করবো |




আয়-রোজগার: 




অনেকেই পেশা হিসেবে ফটোগ্রাফিকে নিতে চান, কিন্তু ফটোগ্রাফারদের আয়-রোজগার সংশয়তা থাকে। এ বিষয়ে বলি, 



১. শিক্ষানবিশ(ইন্টার্ন ) পর্যায়ে ফটোগ্রাফি করে মাসিক ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা আয় করা সম্ভব। 

২. অভিজ্ঞতার সঙ্গে সঙ্গে ফটোগ্রাফারদের উপার্জনও বাড়ে(More than 1 lakh ও হয় অনেকক্ষেত্রে )। 

৩. তাছাড়াও  ফ্রিল্যান্সার ও ওয়েডিং ফটোগ্রাফার হিসেবেও মাসে সম্মানজনক অর্থ আয় করা সম্ভব।



লিখছেন : শুভম নন্দ


0 comments: